মাত্র ৫০ টাকা করে জমালেই মেয়াদ শেষে পাবেন ৩৫ লক্ষ টাকা, জেনে নিন পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিম সম্পর্কে!

প্রতি মাসে ৫০ টাকা করে জমান! ম্যাচিউরিটিতে পেয়ে যাবেন ৩৫ লক্ষ, জেনে নিন পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিম!

0
116
মাত্র ৫০ টাকা করে জমালেই মেয়াদ শেষে পাবেন ৩৫ লক্ষ টাকা, জেনে নিন পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিম সম্পর্কে!
মাত্র ৫০ টাকা করে জমালেই মেয়াদ শেষে পাবেন ৩৫ লক্ষ টাকা, জেনে নিন পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিম সম্পর্কে!

আমাদের দেশের সবথেকে নিরাপদ বিনিয়োগ হিসেবে কিন্তু পোস্ট অফিসের কথা আমরা সবার প্রথমেই উল্লেখ করতে পারি। এখানে বিনিয়োগ করলে কোনরকম রিস্ক বা ত্রুটি ছাড়াই কিন্তু মোটামুটি ভালো অংকের টাকা রিটার্ন পাওয়া যেতে পারে। তবে অবশ্যই তার জন্য পোস্ট অফিসের কিছু দুর্দান্ত স্কিম সম্পর্কে আপনাদের জেনে নিতে হবে যা আপনাদের জীবনে বদল আনতে সাহায্য করবে।।পোস্ট অফিসের একাধিক স্মল সেভিংস স্কিম রয়েছে যা আপনি মাত্র ৫০০ বা ১০০০ টাকা দিয়ে শুরু করতে পারবেন ৷ এবং বেশ কিছু স্কিমে পোস্ট অফিস ব্যাঙ্কের থেকে বেশি রিটার্ন দিয়ে থাকে ৷ আজ আমরা এমনই একটি স্কিমের প্রসঙ্গে এই প্রতিবেদনে আলোচনা করতে চলেছি।

শুরুতেই পাঠক বন্ধুদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিম টির নাম – Gram Suraksha Scheme।সামান্য অংকের টাকা সঞ্চয় করে এখানে কিন্তু আপনারা বেশ বড়সড়ো রিটার্ন পেতে পারেন সহজেই।এখানে প্রতি দিন ৫০ টাকা অর্থাৎ মাসে ১৫০০ টাকা জমা রেখে ম্যাচিউরিটিতে পেয়ে যেতে পারেন ৩১ থেকে ৩৫ লক্ষ টাকা ৷ তবে এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে গেলে আপনাকে অবশ্যই কিছু শর্ত মেনে চলতে হবে।

শর্ত গুলি হল—

১) বিনিয়োগকারীর সর্বনিম্ন বয়স হতে হবে ১৯ বছর এবং সর্বোচ্চ ৫৫ বছর..

২) স্কিমের নিয়ম অনুযায়ী, মিনিমাম সাম ইনস্যুরেড ১০,০০০ থেকে ১ লক্ষ টাকার মধ্যে হয় ৷ এখানে মাসিক, ত্রৈমাসিক, ষান্মাসিক বা বাৎসরিক ভিত্তিতে বিনিয়োগ করার সুবিধা পাওয়া যায় ৷

আরও পড়ুন: সেভিংস একাউন্টে কত টাকা রাখা লাভজনক? বিশদে জেনে নিন তাহলে বাড়বে আপনার টাকার অংক!

এবার আসুন কিছু অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে জানা যাক।এখানে ৫০ টাকা করে প্রতিদিন বিনিয়োগ করলে (অর্থাৎ ১৫০০ টাকা ) ম্যাচিউরিটিতে পেয়ে যাবেন ৩৫ লক্ষ টাকা ৷ ১৯ বছর বয়সে ১০ লক্ষ টাকার গ্রাম সুরক্ষা যোজনা কিনে থাকেন তাহলে ৫৫ বছরের জন্য প্রতি মাসে ১৫১৫ টাকা প্রিমিয়াম দিতে হবে।৫৮ বছরের জন্য ১৪৬৩ টাকা এবং ৬০ বছরের জন্য ১৪১১ টাকা প্রতি মাসে জমা করতে হবে ৷ তাহলে বুঝতেই পারছেন যে টাকার অংক মোটামুটি আপনার এবং যেকোনো মধ্যবিত্ত মানুষের সাধ্যের মধ্যেই রয়েছে।

স্কিমের বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে যেটাও বিনিয়োগের আগে আপনাদের জানা প্রয়োজন।এই স্কিমের বিনিয়োগকারী ৪ বছর পর লোনের সুবিধা পাবেন ৷ কোনও পলিসিহোল্ডার যদি সারেন্ডার করতে চান, তাহলে পলিসি শুরু হওয়ার তিনবছর পর সারেন্ডার করা যেতে পারে ৷ মোটামুটি বিনিয়োগের 5 বছর পরে কিন্তু আপনারা এখান থেকে বোনাসও পেয়ে যাবেন।৫৫ বছরের বিনিয়োগে ৩১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, ৫৮ বছরের বিনিয়োগে ৩৩ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা, ৬০ বছর ম্যাচিউরিটিতে ৩৪ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার সুবিধা মিলবে ৷ সুতরাং আর অপেক্ষা কেন? সঠিকভাবে বিনিয়োগ করে টাকা রিটার্ন পেতে চাইলে আজই যোগাযোগ করুন এই স্কিমের জন্য।

আরও পড়ুন: SIP : এসআইপির কিস্তি বাদ পড়ে গেছে? এবার কি করনীয়!