দেব – মিমি কি রাজঘাটে গিয়েছিলেন? যদিও কারুর নজরে পড়েননি তারা, তবে ধর্নায় দেখা গিয়েছে নুসরত জাহানকে

রাজঘাটে দেখা গেল না দেব এবং মিমিকে, তবে হাজির ছিলেন নুসরত! দেব - মিমি কি রাজঘাটে গিয়েছিলেন? 

2
112
দেব মিমি কি রাজঘাটে গিয়েছিলেন যদিও কারুর নজরে পড়েননি তারা
দেব মিমি কি রাজঘাটে গিয়েছিলেন যদিও কারুর নজরে পড়েননি তারা

দিল্লির রাজঘাটে তৃণমূলের কর্মসূচিতে দেখা মিলল না দুই সাংসদ দেব এবং মিমির। তবে কি অভিষেক বন্দ্যেপাধ্যায়ের নেতৃত্বে হওয়া বিক্ষোভ কর্মসূচিতে যান নি তারা? যদিও জানিয়ে রাখি যে এদিনের কর্মসূচিতে দেখা গিয়েছে অভিনেত্রী নুসরাত জাহানকে। স্বাভাবিকভাবেই দলের এই তিন তারকা সাংসদ কে নিয়ে নানান রকমের প্রশ্ন শুরু হয়ে গিয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক কি বলছে ঘনিষ্ঠ মহল!

দেব-মিমি প্রসঙ্গে রাজ্যসভায় তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন বলেন,“আমি ওঁদের দেখিনি”। নুসরত? তাঁর জবাব, “হ্যাঁ, নুসরতকে দেখেছি।”বেহালা পূর্বের বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায় ও বলেন, “আমি নুসরতকে দেখেছি। ওঁর সঙ্গে কথাও বলেছি। তবে দেব, মিমিকে আমি দেখিনি”। তৃণমূলের অন্যতম মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, “নুসরতকে দেখেছি। কিন্তু দেব আর মিমিকে দেখতে পাইনি। তবে আমি দেখতে পাইনি মানে তাঁরা যাননি তেমনটা নয়।”

Read More: মিঠাই কি শত্রু বাড়াচ্ছেন?

অন্যদিকে দেবের অফিসের তরফ থেকে বলা হচ্ছে যে বর্তমানে তিনি তার আসন্ন ছবি বাঘাযতীনের প্রচারে ব্যস্ত রয়েছেন।। পাশাপাশি অন্য একটি ছবির শুটিংয়ের কাজেও দেব ব্যস্ত। আর সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ব্যস্ত তার পরবর্তী ছবি রক্তবীজের প্রচারে। তাই স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে যে দেব—মিমির অনুপস্থিতি কেন আড়াল করতে চাইছে তৃণমূল কর্তৃপক্ষ! এর পেছনেও কি রয়েছে আবার কোন অন্তঃদ্বন্দ্ব!

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য দেব — মিমি অনুপস্থিত থাকলেও এদিনের সভায় অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের উপস্থিতি কিন্তু কমবেশি সকলেরই দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। সম্প্রতি ফ্ল্যাট প্রতারণা মামলায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল নুসরতকে। ওই বিষয়টিকে নুসরতের ‘ব্যক্তিগত বিষয়’ বলে উল্লেখ করেছিল তৃণমূল। অর্থাৎ এই বিষয়ে ইডি-র বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ তোলেনি দল৷ এমতাবস্তায় রাজঘাটে কর্মসূচিতে নুসরতের উপস্থিতি নিয়ে নানান রকম সমালোচনা করছেন অনেকেই।

Read More: Parineeti-Raghav Wedding Video: ও পিয়া গান গেয়ে নাচতে নাচতে বিয়ের মণ্ডপে পরিণীতি, চরম ভাইরাল ভিডিও

জানিয়ে রাখি আগস্টের শুরুতেই,নুসরত জাহানের বিরুদ্ধে প্রায় চব্বিশ কোটির আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছিল ইডির দফতরে। একইসঙ্গে টাকা নিয়েও ফ্ল্যাট হস্তান্তর না করার অভিযোগ করা হয়েছে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে। যদিও এই প্রসঙ্গে নুসরত জাহান আগেই জানিয়েছিলেন, “এটি দশ বছর আগের ঘটনা। যা বলার আইনজীবীরাই বলবেন”। তারকা সাংসদের তরফ থেকে তখন জানানো হয় গোটা বিষয়টি তার আইনজীবীরা দেখছেন। যেহেতু ED-র মতো সংস্থার কাছে নালিশ জানানো হয়েছে, তাই এই মামলাটি নিয়ে তাঁর আইনজীবীরা আইনি পথেই এগোবেন বলে জানা গিয়েছিল।