Health Tips : চিনির পরিবর্তে গুড় খাওয়া কি আদৌ শরীরের জন্য ভালো? কি বলছেন পুষ্টিবিদেরা!

Health Tips : চিনির পরিবর্তে গুড় খেলে কি শরীরের কোন ক্ষতি হয়? জেনে নিন পুষ্টিবিদদের কথা!

1
147
Health Tips : চিনির পরিবর্তে গুড় খাওয়া কি আদৌ শরীরের জন্য ভালো? কি বলছেন পুষ্টিবিদেরা!
Health Tips : চিনির পরিবর্তে গুড় খাওয়া কি আদৌ শরীরের জন্য ভালো? কি বলছেন পুষ্টিবিদেরা!

শরীরের কথা ভেবে অনেকেই আজকাল চিনি খাওয়া সম্পূর্ণ বন্ধ করে দিয়েছেন। বিশেষত বয়স একটু বাড়লেই অনেকের সুগার এবং কোলেস্টেরল বৃদ্ধি থেকে শুরু করে আরো নানান সমস্যা লক্ষ্য করা যায়, যার মূলে রয়েছে এই চিনি। কিন্তু চিনির বিকল্প হিসেবে অনেকেই রয়েছেন যারা কোন রকমের সুগার ফ্রি আইটেম নয় বরং গুড়কে খাবারে যোগ করেছেন। অনেকেই মনে করেন যে প্রাকৃতিক মিষ্টি খাবার হিসেবে গুড়ের অনেক উপকারিতা রয়েছে। কিন্তু আদৌ কি তাই? সত্যিই কি চিনির বদলে গুড় খেলে আমাদের শরীর ভালো থাকতে পারে? চলুন সময় নষ্ট না করে জেনে নেওয়া যাক এই দুই উপকরণ এর মধ্যে কোনটি আমাদের শরীরের জন্য ভালো!

এই প্রসঙ্গে কলকাতার বিখ্যাত পুষ্টিবিদ মিনাক্ষী মজুমদার জানিয়েছেন,“আমাদের অতি পরিচিত গুড়ে রয়েছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, ক্যালশিয়াম, আয়রন, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি সহ একাধিক জরুরি খনিজ ও ভিটামিন। তাই নিয়মিত গুড় খেলে লাংস থাকবে সুস্থ-সবল, বাড়বে এনার্জি এবং কমবে স্ট্রেসের প্রকোপ। এমনকী এই মিষ্টি খাবারে কিছুটা পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টও রয়েছে যা একাধিক রোগের ফাঁদ এড়িয়ে চলতে সাহায্য করবে বৈকি! তবে চিনি কিন্তু আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।চিনিতে প্রচুর পরিমাণে সুক্রোজ থাকে যা কিনা রক্তে দ্রুত গতিতে সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। এমনকী কোলেস্টেরল বাড়ানোর কাজেও চিনির জুড়ি মেলা ভার। শুধু তাই নয়, চিনিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালোরি যা কিনা ওজনের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে ব্যাপক রকম ভাবে।তাই একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর চিনি যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলাই উচিত”।

Read More: Diabetes : আপনিও কি দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিসের ভুক্তভোগী? তাহলে একবার রান্নার তেল বদল করে দেখুন

চিনি এবং গুড়ের মধ্যে কোনটা খাওয়া বেশি যুক্তিযোগ্য?

যে কোন বয়সেই সুস্থ সবল থাকতে হলে আপনারা চিনির পরিবর্তে অবশ্যই গুড়কে খাদ্য তালিকায় যোগ করতে পারেন। এটি কিন্তু আপনাদের শরীরের বিশেষ কোনো রকমের ক্ষতি করবে না।এমনকী নিয়মিত গুড় খেলে শরীরে খনিজ ও ভিটামিনের ঘাটতিও পূরণ হবে। তবে ৫০ গ্রাম পরিমাণের বেশি গুড় যেন আপনার নিয়মিত খাদ্য তালিকায় না থাকে, সেটা খেয়াল রাখবেন।

তবে জানিয়ে রাখি বিশেষ কিছু রোগে গুড় খাওয়ার উপরেও বিধি-নিষেধ রয়েছে।ডায়াবিটিস রোগীদের চিনি এবং গুড়, এই দুইয়ের থেকেই দূরে থাকতে হবে। আপনারা বরং সুগার ফ্রি খেতে পারেন। ঠিক একই কথা কিন্তু স্থূলতা বা কোলেস্টেরল জনিত সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রেও কিন্তু প্রযোজ্য। যদি সম্পূর্ণ ফিট এবং নীরোগ জীবন কাটাতে চান তাহলে যতটা সম্ভব মিষ্টি খাবার থেকে দূরে থাকুন এবং শাকসবজিকে খাদ্য তালিকায় যোগ করুন। মরসুমী শাকসবজি রোজকার ডায়েটে যদি সঠিক পরিমাণ রাখা হয় তাহলে যেমন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে ওঠে, তেমনভাবেই শরীরের ভিটামিন আর খনিজ লবনের ঘাটতি পূরণ হয়।

Read More: High Protein Foods : খাবারের পাতে রেখে দেখুন এই ৫ খাবার, রোজ খেলে ৬০ বছর বয়স অবধি আর কোনো চিন্তা করতে হবে না!