Government Skim : মাসে ১ হাজার টাকা করে জমিয়ে রাখুন পোস্ট অফিসে, পাঁচ বছর পর কত রিটার্ন আসবে হাতে, জেনে নিন!

Government Skim : মাসে মাত্র ১ হাজার টাকা করে জমান পোস্ট অফিসে, পাঁচ বছরের মধ্যেই পাবেন দুর্দান্ত রিটার্ন!

1
126
Save 1 thousand rupees a month in the post office, find out how much return will come after five years!
Save 1 thousand rupees a month in the post office, find out how much return will come after five years!

আমাদের দেশে নিরাপদ বিনিয়োগ বলতে সকলে পোস্ট অফিস কেই বুঝে থাকেন। জানিয়ে রাখি পোস্ট অফিসে সাধারণ জনগণের জন্য মোট ১০ টি স্কিম রয়েছে। আজকে আমরা এমনই একটি প্রকল্প নিয়ে আলোচনা করব যেখানে প্রতি মাসে যদি আপনারা এক হাজার টাকা করে বিনিয়োগ করেন সেক্ষেত্রে পাঁচ বছর পরে কিন্তু রিটার্নের পরিমাণ আপনাকে অবাক করে রাখবে। এই স্কিমটির নাম হচ্ছে রেকারিং ডিপোজিট স্কিম। প্রতিমাসে আপনাকে এতে নির্দিষ্ট ভাবে পোস্ট অফিসে যাওয়া আসা করতে হবে এবং পাঁচ বছর পর এই ডিপোজিট স্কিমটি ম্যাচিউরিটি হয়ে যাবে।

রেকারিং ডিপোজিট স্কিমে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য কি কি যোগ্যতার প্রয়োজন রয়েছে?

যদি আপনি এই স্কিমে অ্যাকাউন্ট খুলতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে।

  • ১৮ বছর বা তার বেশি বয়স্ক ব্যক্তিরা এই রেকারিং ডিপোজিট একাউন্ট খুলতে পারবেন। বয়সের কোন সর্বোচ্চ ঊর্ধ্বসীমা নেই তাই নিশ্চিত থাকতে পারেন।
  • গ্রাহক যদি চায় সেক্ষেত্রে ১০ বছর বা তার ঊর্ধ্বে যেকোন মাইনর এর নামেও পোস্ট অফিসের রেকারিং ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে। তবে অবশ্যই সঠিকভাবে শর্তাবলী পূরণ করতে হবে।
  • দশ বছর বয়সের কম বা প্রতিবন্ধী কোন ব্যক্তি যদি একাউন্ট করেন সেক্ষেত্রে পিতা মাতা অর্থাৎ অভিভাবককে এই অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

বিশেষ কিছু বিষয়:

  • যেকোনো পোস্ট অফিসে গিয়ে আপনি খুব সহজেই এই রেকারিং ডিপোজিট একাউন্ট খুলতে পারেন। এককভাবে অথবা যৌথভাবে এই অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। জানা যাচ্ছে পোস্ট অফিসের এই স্কিমে সর্বনিম্ন ডিপোজিটের পরিমাণ হবে ১০০ টাকা।
  • পোষ্ট অফিস RD স্কিমে সর্বোচ্চ ডিপোজিটের কোন লিমিট নেই। আপনি ১০০ টাকার পর ১০ টাকার গুনিতকে যত খুশি টাকা জমা করতে পারবেন। এখানে সুদের পরিমাণ রাখা হয়েছে ৬.৫% এবং ম্যাচুরিটির বয়স হচ্ছে পাঁচ বছর।এক্ষেত্রে আপনি প্রিম্যাচিউর ক্লোজ করতে পারবেন অর্থাৎ ম্যাচুরিটি হওয়ার আগে টাকা তুলে নিতে পারবেন। রেকারিং ডিপোজিট একাউন্ট থেকে আপনারা কিন্তু লোনের সুবিধাও পেয়ে যাবেন।

Read More: Okaya Motofaast: বাজারে এলো 7 ইঞ্চির বিশাল টাচস্ক্রিন ও 120 কিমি মাইলেজ সহ ইলেকট্রিক স্কুটার, জেনে নিন বিশদে!

এবার আসুন জেনে নেওয়া যাক এই স্কিমে ঠিক কত টাকা জমা করলে কত টাকা পর্যন্ত রিটার্ন পাওয়া যাবে!

১) যদি আপনি প্রতি মাসে ৫০০ টাকা করে জমা করেন সেক্ষেত্রে ম্যাচুরিটির সময় আপনার মোট জমানো টাকার পরিমাণ হবে ৩০ হাজার টাকা। জমানো টাকার উপরে আপনাকে ৫,৪৯৮ টাকা সুদ দেওয়া হবে.. এক্ষেত্রে রিটার্নের পরিমাণ দাঁড়াচ্ছে সবমিলিয়ে ৩৫ হাজার ৪৯৮ টাকা।

২) প্রতিমাসে ৮০০ টাকা করে যদি গ্রাহক জমা করেন সেক্ষেত্রে মেয়াদ শেষে মোট টাকার পরিমান হবে ৪৮ হাজার টাকা এবং সুদের পরিমাণ হবে ৮,৭৯৫ টাকা।। জমানো টাকার উপরে আপনারা রিটার্ন পাবেন ৫৬,৭৯৫ টাকা।।

৩) যদি গ্রাহকেরা মাসে ১,০০০ করে জমা করে থাকেন সে ক্ষেত্রে মেয়াদ শেষে মোট জমানো টাকার পরিমান হবে ৬০,০০০ টাকা। এর উপরে সুদ মিলিয়ে রিটার্ন হিসেবে হাতে আসবে ৭০,৯৮৯ টাকা।

Read More:

৪) গ্রাহকরা যদি ২০০০ টাকা করে জমা করে থাকেন সেক্ষেত্রে মেয়াদ শেষে মোট টাকার পরিমান দাঁড়াবে ১,২০,০০০ টাকা। সুদের পরিমাণ মিলিয়ে রিটার্ন হিসেবে পাবেন ১,৪১,৯৮৩ টাকা।

৫) ঠিক একই রকম ভাবে গ্রাহকরা যদি ৩ হাজার টাকা করে জমা করেন তাহলে মোট টাকার পরিমান দাঁড়াচ্ছে ১,৮০,০০০ । সুদের পরিমাণ যোগ করলে এর রিটার্ন হবে ২,১২,৯৭২ টাকা।

৬) মাসিক ভিত্তিতে যদি আপনি এই স্কিমে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত জমা করে থাকেন তাহলে মোট টাকার অংক মেয়াদ শেষে দাঁড়াবে ৩,০০,০০০ টাকা। জমানো টাকার উপর সুদ যোগ করে রিটার্নের পরিমাণ দাঁড়াচ্ছে ৩,৫৪,৯৫৭ টাকা।

৭) মাসিক ভিত্তিতে যদি আপনারা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা করেও জমা করতে পারেন সেক্ষেত্রে ম্যাচিউরিটির পর ৬,০০,০০০ টাকায় পরিণত হবে। যার উপরে সুদ থাকছে ১,০৯,৯০২ টাকা। রিটার্ন হিসেবে হাতে আসছে ৭,০৯,৯০২ টাকা।

Read More: Bollywood : সিনেমায় অভিনয় করার জন্য গায়ের রং বদলাতে কি করেছিলেন! জানালেন অভিনেতা বিক্রান্ত