অতিরিক্ত চা খাওয়ার অভ্যাসে ভুগছেন? জেনে রাখুন এটিই বাড়িয়ে তুলছে আপনার শরীরে মারণরোগের ঝুঁকি

আপনি কি অত্যন্ত চা প্রেমি মানুষ? ভুলেও মিস করবেন না এই প্রতিবেদন!

0
155
অতিরিক্ত চা খাওয়ার অভ্যাসে ভুগছেন? জেনে রাখুন এটিই বাড়িয়ে তুলছে আপনার শরীরে মারণরোগের ঝুঁকি
অতিরিক্ত চা খাওয়ার অভ্যাসে ভুগছেন? জেনে রাখুন এটিই বাড়িয়ে তুলছে আপনার শরীরে মারণরোগের ঝুঁকি

সুখে- দুঃখে, প্রেমে অথবা চিন্তায় চা হচ্ছে মানুষের বরাবরের সঙ্গী! আপনিও কি একজন অত্যন্ত চা প্রেমী মানুষ? তাহলে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি ভুলেও মিস করবেন না। কারণ চা খাওয়ার ভালো দিকের পাশাপাশি এমন কিছু ক্ষতিকর দিক রয়েছে যেগুলো না জানা আপনার জীবনে সমস্যা ডেকে আনবে।একঘেয়েমি কাটাতে পানীয় হিসেবে চায়ের জুড়ি মেলা ভার। বিপাকহার বাড়িয়ে তোলার জন্যেও অনেকে বিশেষ কিছু চায়ের উপর ভারসা রাখেন। কিন্তু চিকিৎসকেরা বলছেন, ঘন ঘন চা খাওয়ার এই প্রবণতা নানা রকম শারীরিক সমস্যা বাড়িয়ে দিতে পারে। এক কাপ চায়ে সাধারণত ২০ থেকে ৬০ মিলিগ্রাম ক্যাফিন থাকে। আর এই ক্যাফিন আমাদের শরীরে নানান রকমের মারণ রোগ গড়ে তুলতে সাহায্য করে থাকে তাই দিনে তিন থেকে চার কাপের বেশি চা যদি আপনারা খাওয়ার অভ্যাস রেখে থাকেন তবে তা আজ থেকেই বন্ধ করে ফেলুন।

• অতিরিক্ত চা পান করার কুফল:

ত্বকের ক্যানসার:

যারা অতিরিক্ত দুধ চা পান করেন তাদের কিন্তু ত্বকের ক্যান্সার হওয়ার সমস্যা অত্যন্ত বেশি থাকে। ক্যানসারের ক্ষেত্রে অনুঘটক হিসেবে কাজ করে চা। তাই এবার থেকে ত্বকের যত্ন করার জন্য অতিরিক্ত দুধ চা পান করার সমস্যা থেকে আপনারা বিরত থাকুন।।

অ্যালার্জির সমস্যা:

যারা দিনে বহুবার চা পান করে থাকেন তাদের কিন্তু শরীরে নানান রকমের এলার্জির সমস্যা লক্ষ্য করা যায়।ত্বকে এগজ়িমা, ডার্মাটাইটিসের মতো সমস্যা বেড়ে যেতে পারে। ফলে ত্বক লাল হয়ে যাওয়া, ঘন ঘন র‌্যাশ বেরোনোর মতো অবস্থা বেশি সৃষ্টি হবে। অবশ্যই তাই নিয়ন্ত্রণ বজায় রেখে চা পান করুন এবং সম্ভব হলে লিকারচা বা গ্রিন টি পান করুন।

প্রদাহজনিত অসুখ:

অতিরিক্ত চা পানের ফলে আমাদের শরীরে কিন্তু প্রদাহ জনিত অসুখের লক্ষণ দেখা যায়।চায়ে আদা কিংবা ছোট এলাচ দিয়ে খেতে পছন্দ করেন অনেকেই। তবে জেনে রাখুন এই ধরনের উপকরণ গুলো চাই দিলে কিন্তু ত্বকের প্রদাহ খুবই বেড়ে যায় এবং কষ্ট হয়।

আরও পড়ুন- Beauty Tips : বিশেষ কোনো ঝামেলা ছাড়াই এইভাবে দূর করে ফেলুন মুখের অবাঞ্ছিত লোম, জেনে নিন টোটকা

কোলাজেনের মাত্রায় হেরফের:

অতিরিক্ত চা পানের সমস্যাগুলোর মধ্যে এটি হলো একটি অন্যতম বিষয়।কোলাজেন এমন এক ধরনের প্রোটিন, যা ত্বকের টান টান ভাব বজায় রাখতে সাহায্য করে। চায়ের মধ্যে থাকা ক্যাফিন এবং দুধ শরীরের প্রাকৃতিক কোলাজেনের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে। ফলে অল্প বয়সেই ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে পারে। এর প্রভাব কিন্তু আপনারা অনেক প্রত্যক্ষ উদাহরণ হিসেবে আশেপাশেই দেখতে পারবেন। তাই চায়ের মধ্যে যতটা সম্ভব গ্রিন টি বা লেবু চা পান করুন।

হরমোনের মাত্রায় হেরফের:

হরমোন আমাদের শরীরে নানান রকম কাজ সঞ্চালনা করতে সাহায্য করে থাকে।অতিরিক্ত চা খাওয়ার প্রবণতা শরীরে নানা রকম হরমোন ক্ষরণের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। যার প্রভাব পড়ে ত্বকের উপর। এর ফলস্বরূপ অনেক ক্ষেত্রেই কিন্তু ত্বকে সেবামের পরিমাণ বেড়ে যায় এবং ব্রণ এবং পিম্পল এর মতন সমস্যাগুলো মারাত্মক রূপ ধারণ করে.

আরও পড়ুন- Weight Loss Tips : কিয়ারা আদ্ভানির ছিপছিপে চেহারার পেছনে লুকিয়ে রয়েছে কি রহস্য? ওয়ার্কআউটের আগে কি খান নায়িকা?

অন্ত্রের সমস্যা:

অতিরিক্ত চা খেলে অন্ত্রের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এটি খেলে অন্ত্রের ক্ষতি হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে হজম সংক্রান্ত নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। খাবার হজমে সমস্যা হয়। সুস্থ থাকতে এবং ওজন কমানোর জন্য, বিপাকীয় হার দ্রুত হওয়া প্রয়োজন। এমন পরিস্থিতিতে আমরা বেশি চা খেলে বিপাকীয় হার কমে যায়। এ কারণে পেটে জ্বালাপোড়া ও গ্যাস ইত্যাদি সমস্যায় পড়তে হয়।