Bizarre : স্বপ্নের বিয়ের জন্য ২০ বছর ধরে টাকা জমিয়েছিলেন মহিলা, কিন্তু মনের মানুষ না পেয়ে শেষে এ কি করলেন তিনি?

Bizarre : বিয়ের জন্য ২০ বছর ধরে টাকা জমালেও পূরণ হলো না স্বপ্ন, শেষে কি সিদ্ধান্ত নিলেন মহিলা!

0
193
Bizarre : স্বপ্নের বিয়ের জন্য ২০ বছর ধরে টাকা জমিয়েছিলেন মহিলা, কিন্তু মনের মানুষ না পেয়ে শেষে এ কি করলেন তিনি?
Bizarre : স্বপ্নের বিয়ের জন্য ২০ বছর ধরে টাকা জমিয়েছিলেন মহিলা, কিন্তু মনের মানুষ না পেয়ে শেষে এ কি করলেন তিনি?

বিয়ে নিয়ে প্রত্যেক মানুষের মনে নানান রকমের স্বপ্ন থাকে। কিন্তু আজকের এই প্রতিবেদনে আমরা এমন একটি ঘটনার কথা আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নেব যা হয়তো কম বেশি অবাক করবে সকলকেই। আজ আমরা বলবো ৪২ বছর বয়সী সারা উইকিনসনের কথা। প্রায় ২০ বছর ধরে নিজের বিয়ের জন্য টাকা জমিয়েছিলেন এই মহিলা। কিন্তু তারপরেও কোন স্বপ্নের পুরুষ তার মনে জায়গা করে নিতে পারল না। তবে তা বলে কি থেমে গিয়েছিলেন তিনি? একেবারেই না, বরং মনের মানুষ না পেয়ে নিজের জন্য শেষে এক অভিনব সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন সারা।

মনের মানুষ না পেয়ে শেষমেষ নিজেকেই বিয়ে করেন এই মহিলা।নিজেকে বিয়ে করার জন্য খুব বড় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন তিনি। নিজেকেই বিয়ের উপহারে আংটি দিলেন। ঘটা করে বিয়ে হল, খাওয়াদাওয়া হল, উদ্‌যাপন হল— তবে সবই হল বরকে ছাড়া। কিন্তু গোটা ব্যাপারটাই যে জমিয়ে উপভোগ করেছেন এই 42 বছর বয়সী মহিলা তা বোঝাই যাচ্ছে। এই প্রসঙ্গে সারা উইকিনসনকে সংবাদ মাধ্যমের তরফ থেকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, “একটা দিনের জন্য সকলের চোখ যেন খালি আমার দিকেই ছিল।

আরও পড়ুন- আপনিও কি প্রতিনিয়ত বিয়ের স্বপ্ন দেখছেন? জেনে নিন এটা শুভ না অশুভ ইঙ্গিত!

দিনটা বেশ উপভোগ করেছি।একটা বয়সের পর এমন এক সময় আসে যখন মনে হয়, আর বিয়ে করা ঠিক হবে না। কিন্তু তাই বলে এত আনন্দ, উদ্‌যাপন থেকে দূরে থাকব কেন? টাকাটা আমি জমিয়েছিলাম বিয়ের জন্য। বিয়ে যখন হল না, তখন ওই টাকা নিজের মতো করে খরচ করার অধিকার আছে আমার।”অভিনব এই উদ্যোগ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই কিন্তু রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছে। অনেকেই মহিলার এই সিদ্ধান্তকে স্যালুট জানিয়েছেন এবং নানান রকমের মজাদার মন্তব্য করেছেন। আবার বহু মানুষ এটাকে তার জীবনের সেরা সিদ্ধান্ত বলেও উল্লেখ করেছেন।

আরও পড়ুন- কিভাবে নিজের প্রেমিকা বা স্ত্রীকে খুশি রাখবেন? জেনে নিন এই বিশেষ কয়েকটি কৌশল যা কাজে লাগবে সকলেরই!