এই ভারতীয় চাকরিগুলো করলেই আপনারা মাসে বেতন পাবেন ২ লক্ষ টাকার উপরে.. জেনে নিন কি কি রয়েছে এই তালিকায়?

ভারতে এমন কোন চাকরি রয়েছে যাতে মাসিক বেতন ২ লাখ টাকার উপরে.. যারা দুর্দান্ত এই বেতনের চাকরিগুলো করতে চান তারা অবশ্যই কিন্তু আজকের এই প্রতিবেদনটি মিস করবেন না!

0
207
এই ভারতীয় চাকরিগুলো করলেই আপনারা মাসে বেতন পাবেন ২ লক্ষ টাকার উপরে.. জেনে নিন কি কি রয়েছে এই তালিকায়?

ভারতবর্ষে অবস্থান করা বেকার যুবক-যুবতীদের প্রত্যেকেরই আশা পড়াশোনা শেষে একটি ভালো মোটা অংকের মাইনের চাকরি করা। তবে আপনারা কি জানেন এমন কোন কোন চাকরি রয়েছে যেখানে বেতন ছয় অঙ্কের উপরে? কি ধরনের কাজ সেখানে আপনাদের করতে হবে? আপনি যদি সদ্য পড়াশোনা শেষ করেছেন তাহলে অবশ্যই আজকের এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্যই। কারণ আজকের এই প্রতিবেদনে আমরা এমন কিছু ভারতীয় চাকরির কথা বলবো যাতে বেতনের পরিমাণ দুর্দান্ত। চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

১)ডেটা সায়েন্স ও অ্যানালিটিক্স:

বড় অঙ্কের মাইনের তালিকায় প্রথমেই রয়েছে এই সেক্টর। বিজনেসের প্রতিযোগিতার যুগে কদর বেড়েছে ডেটা সায়েন্স ও অ্যানালিস্টদের। ইউজার ডেটার নজরদারি, নিয়ন্ত্রণ এবং ব্যবহারের কাজে নিযুক্ত ডেটা অ্যানালিস্টদের বার্ষিক বেতন ₹10 লাখ (প্রায়) থেকে শুরু হয়। অভিজ্ঞতা অনুযায়ী কিন্তু ধীরে ধীরে এই বেতন আরও ঊর্ধ্বমুখী হতে পারে।

২. তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্র:

দেশের সেরা আইটি কোম্পানিগুলিতে সিনিয়র সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার, আইটি প্রোজেক্ট ম্যানেজার এবং আইটি কনসালট্যন্টদের ন্যূনতম বেতন বার্ষিক 15-20 লাখ টাকার কাছাকাছি হয়। আরও অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে ₹50 লাখ এমনকী 1 কোটি টাকার প্যাকেজও রয়েছে। তাই বড় বেতনের চাকরির আশা করে থাকলে আপনারা নিশ্চিন্তে এই সেক্টরে পা এগোতে পারেন।

৩. এভিয়েশনে চাকরি :

বড় অংকের বেতনের চাকরি তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে এভিয়েশন। পাইলটদের মাসিক বেতন লাখ টাকার উপরেই। হেলিকপ্টার চালক হলে বেতন আরও বেশি। শুধু তাই নয়, এয়ারক্র্যাফ্ট ইঞ্জিনায়রদের বার্ষিক বেতনও 20 লাখ টাকার কাছাকাছিই হয়। তাই ছেলেমেয়ে নির্বিশেষে কিন্তু সকলেই এই সেক্টরে এগিয়ে আসতে পারেন

৪. আইনজীবী:

যদি আপনি আইনজীবী হওয়াকে পেশা হিসেবে নিয়ে থাকেন তাহলে মাস গেলে কিন্তু মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতেই পারেন।অভিজ্ঞ আইনজীবীদের আয় বেশ ভালোই হয়। এদের মধ্যে যদি কর্পোরেট আইনজীবী হন, তাহলে বার্ষিক আয় 2 লাখ পর্যন্ত পৌঁছে যায়।

৫. ডাক্তার:

জেনারেল প্র্যাক্টিস করে ভালোই আয় করতে পারেন ডাক্তাররা। তবে সার্জন বা মেডিক্যাল স্পেশালিস্ট হলে তুলনায় আয় বেশি হয়। এই ক্ষেত্রে প্রায় এক লক্ষ থেকে শুরু করে প্রায় কয়েক কোটি পর্যন্ত আপনারা আয় করতে পারেন। তবে পুরোটাই নির্ভর করবে আপনার জনপ্রিয়তা এবং কাজের উপরে।

৬. তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস সেক্টর:

এই ফিল্ডে কাজ করলে মোটা বেতন কার্যত নিশ্চিতই। অভিজ্ঞ হলে তো হেসে খেলেই নিজের পকেট ভারী করতে পারবেন আপনি।

৭. চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট:

যারা কমার্সের স্টুডেন্ট রয়েছেন তারা কিন্তু নিশ্চিন্তে এই দিকে এগিয়ে আসতে পারেন.. প্রথম দিকে বেতন কম থাকলেও কেরিয়ারে মধ্য পর্যায়েই সহজেই ₹10 লাখের বেশি আয় করতে পারেন সিএ-রা।

৮. ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কার:

বড় অংকের টাকা উপার্জন করতে চাইলে আপনারা কিন্তু ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকার হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেন।
ইন্ডাস্ট্রিতে এরা পরিচিত ‘দ্য মানি ম্যান’ হিসেবে। তাঁদের বার্ষিক বেতন 50 লাখ টাকা পর্যন্ত গড়াতে পারে।

৯.ডিফেন্স:

ডিফেন্স অর্থাৎ সামরিক সুরক্ষা বাহিনী যেমন, ভারতীয় আর্মি, ভারতীয় নেভি এবং ভারতীয় এয়ারফোর্সের বিভিন্ন পদের কর্মীদের চোখ ধাঁধানো বেতন দেওয়া হয়। অন্যান্য ক্ষেত্রের মত এখানেও কর্মীদের বর্তমান পদ এবং অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে বেতন ঠিক হয়। উর্দ্ধতন অফিসাররা প্রায় 56,100 থেকে 2,50,000 টাকা পর্যন্ত বেতন পেয়ে থাকেন।

১০.ASO :

ASO অর্থাৎ অ্যাসিস্ট্যান্ট সেকশন অফিসার পদটি মিনিস্ট্রি অফ এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়) এর অধীনস্থ। এখানে SSC CGL পরীক্ষার মাধ্যমে প্রার্থীদের নির্বাচিত করা হয়।নির্বাচিত হবার পর, প্রার্থীদের ভালোমানের কোয়ার্টারসহ মোটা অঙ্কের বেতন দেওয়া হয়। এছাড়াও ভালো হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা সুবিধা দেওয়া হয়ে থাকে। এই পদের ক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে, 1.25 লাখ টাকার কাছাকাছি বেতন দেওয়া হয়। অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি এবং প্রমোশনের সাথে সাথে পরবর্তীতে বেতন আরও বৃদ্ধি পায়।