Kedarnath Yatra: সম্প্রতি রয়েছে কেদারনাথ যাওয়ার প্ল্যান? ট্রেকিংয়ের সময় যা কিছু মাথায় রাখবেন

0
164
Kedarnath Yatra
Image: Kedarnath

কেদারনাথ (Kedarnath) হল তীর্থযাত্রীদের কাছে এমন একটি স্থান যার নাম শুনলে আপনা থেকেই হাত প্রণামের ভঙ্গিমায় উঠে আসে। শুধুমাত্র তীর্থযাত্রী নয় যারা ট্রেকিং করতে ভালোবাসেন তাদের জন্যও কিন্তু এই জায়গাটি একেবারে প্রথম পছন্দের। চার ধাম এর মধ্যে অন্যতম এই কেদারনাথ (kedarnath )মন্দিরে পৌঁছন কিন্তু সবার পক্ষে সম্ভব নয়। দীর্ঘ সময়ের সমতল পরিবেশের আবহাওয়া যারা অভ্যস্ত আচমকাই পাহাড়ের উঁচু নিচু এবং শীতল আবহাওয়ায় ট্রেকিং করে এই কেদারনাথ(kedarnath) পৌঁছানো অনেকটাই তাদের কাছে কষ্টকর। চলতি বছরের কেদারনাথ যাত্রা বেশ কিছু সময় আগেই শুরু হয়ে গিয়েছে। তাই স্বাভাবিকভাবেই আগ্রহী তীর্থযাত্রীদের মনে রয়েছে এই যাত্রা নিয়ে নানান রকমের প্রশ্ন। যদি আপনিও এই বিষয়ে কৌতুহলী হয়ে থাকেন তাহলে কেদারনাথ বিষয়ক আজকের এই প্রতিবেদনটি ভুলেও মিস করবেন না। কেদারনাথ(kedarnath) যাত্রার আগে যে নিয়মগুলি আপনাকে মেনে চলতে হবে সেই সম্পর্কে এই প্রতিবেদনে আজকে একটু বিশদে আলোচনা করতে চলেছি। চলুন তাহলে সময় নষ্ট না করে শুরু করা যাক।

১) আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া:

কেদারনাথ (kedarnath) ভ্রমণের জন্য একজন তীর্থযাত্রী হিসেবে আপনাকে অবশ্যই কিন্তু সবার প্রথমে আবহাওয়া বা প্রাকৃতিক পরিবেশের সঙ্গে সমস্ত পরিস্থিতিতে মানিয়ে নেওয়া শিখতে হবে।। সময় হাতে নিয়ে সুবিধামতো পরিস্থিতি দেখে ধাপে ধাপে পাহাড়ে উঠুন এবং পৌঁছে যান চার ধামের অন্যতম এই তীর্থক্ষেত্রে। তবে বয়স্কদের জন্য অবশ্যই এটি বিশেষ কষ্টকর। বিশেষ কোনো শারীরিক সমস্যা থাকলে অবশ্যই কিন্তু যাত্রা শুরু করার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না,নয়তো আপনার জীবনের ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে।

২) কম জিনিস নিয়ে ভ্রমণ করুন:

শুধুমাত্র কেদারনাথ(kedarnath) যাত্রা নয় যেকোনো ট্রেকিংয়ের জায়গাতেই কিন্তু এই পয়েন্টটি বিশেষভাবে কার্যকরী। যতটা কম জিনিস নিয়ে আপনি ভ্রমণ করবেন বা বাড়ি থেকে বেরোবেন ঠিক ততটাই আপনার বোঝা কমবে। বেশি জিনিসপত্র নিলে কিন্তু ট্রেকিং করার সময় অর্থাৎ পাহাড়ে ওঠার সময় আপনার ব্যাপক সমস্যা হতে পারে এমনকি শারীরিক অস্বস্তি বেড়ে যেতে পারে।

৩) শীতপোশাকের প্রয়োজনীয়তা:

যেহেতু কেদারনাথের পরিবেশ সর্বদাই শীতল প্রকৃতির, তাই অবশ্যই কিন্তু আপনাকে এই তীর্থক্ষেত্রে যাওয়ার আগে ভালোভাবে এখানকার পরিবেশ স্টাডি করতে হবে। সেই অনুযায়ী আপনি নিজে এবং আপনার সঙ্গী সাথীদের পোশাক পরিচ্ছদ পরিকল্পনা করে নিন এবং যথেষ্ট পরিমাণে গরম পোশাক সঙ্গে রাখুন। তাহলে আর যাত্রা পথে কোনো রকম বাধা পড়বে না।

৪) প্রয়োজনীয় ওষুধ:

যে কোন স্থানে ভ্রমণের আগেই কিন্তু অবশ্যই প্রয়োজনীয় ওষুধ নিজের সঙ্গে রাখা বাঞ্ছনীয়। সরকারি সাহায্য কেন্দ্রে তীর্থযাত্রীদের জন্য উপযুক্ত ওষুধ মজুদ থাকে আপনারা চাইলে সেখান থেকেও সংগ্রহ করে নিতে পারেন।। যদি কোন ব্যক্তির উচ্চ রক্তচাপ বা ডায়াবেটিসের মতো সমস্যা থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই কিন্তু এই ওষুধগুলো সময়ে সময়ে বিশেষ কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে। কেদারনাথ (kedarnath)ভ্রমনের আগে অবশ্যই কিন্তু আপনি আলাদাভাবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না। এটি আপনার শারীরিক সুস্থতার জন্য বিশেষভাবে প্রয়োজনীয়। এছাড়াও জ্বর, ডায়ারিয়া, বমির ওষুধ, অ্যান্টিসেপটিক ক্রিম, পেইনকিলার ইত্যাদি সঙ্গে রাখুন।

৫) শুকনো খাবার:

কেদারনাথের পরিবেশ ঠান্ডা হওয়ার কারণে আপনাকে অবশ্যই কিন্তু এমন খাবার সঙ্গে রাখতে হবে যা আপনাকে উপযুক্ত পুষ্টির পাশাপাশি শরীর গরম রাখতেও সাহায্য করবে।শুকনো ফল, প্রোটিন বার, বিস্কুট, চিঁড়ে, মুড়ির মত খাবার আপনি সঙ্গে রাখতে পারেন যা চটজলদি খাওয়া যায় এবং শরীরের কোনরকম ক্ষতিও হয় না।

৬)অন্যান্য বিষয়:

যদি আপনি কেদারনাথ যাত্রা করার বিষয়ে আগ্রহী রয়েছেন তাহলে আগে থেকে হোটেল বুক করে রাখুন। এছাড়া সঙ্গে রাখুন প্রয়োজনীয় নথিপত্র। চারধাম ভ্রমণের জন্য অনুমতি পত্রের প্রয়োজন পড়ে। এর জন্য আধার কার্ড বা ভোটার কার্ড কিংবা পাসপোর্ট সঙ্গে থাকলেই চলবে। ব্যস এই কয়েকটি বিষয়ে মাথায় রাখলেই একেবারে নিশ্চিন্তে কোন রকমের বিঘ্ন ছাড়াই পৌঁছে যেতে পারবেন কেদারনাথ ধামে