Skin Care Tips : কোনরকম রাসায়নিকের ব্যবহার ছাড়াই কিভাবে দূর করবেন ত্বকের কালো দাগ, রইল বিশদে

Skin Care Tips : ত্বকের কালো দাগ কিভাবে দূর করবেন? আসুন বিশদে জেনে নেই!

1
174
Skin Care Tips : কোনরকম রাসায়নিকের ব্যবহার ছাড়াই কিভাবে দূর করবেন ত্বকের কালো দাগ, রইল বিশদে
Skin Care Tips : কোনরকম রাসায়নিকের ব্যবহার ছাড়াই কিভাবে দূর করবেন ত্বকের কালো দাগ, রইল বিশদে

আসন্ন পুজো উপলক্ষে অনেকেই হয়তো ইতিমধ্যে রূপচর্চা শুরু করে দিয়েছেন। তবে অনেক ক্ষেত্রেই কিন্তু ত্বকের কালো দাগ নিয়ে অনেকেই সমস্যার ভুক্তভোগী হয়ে রয়েছেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা এই কালো দাগ দূর করার ব্যাপারেই বিশদে আলোচনা করবো। যদি আপনিও এই ধরনের সমস্যায় পড়ে থাকেন তাহলে আজকের এই প্রতিবেদনটা ভুল করেও মিস করবেন না। সাধারণত ক্রমাগত বাইরের ধুলোবালি অথবা দূষণের কারণে আমাদের ত্বকের কোষের সমস্যার লক্ষ্য করা যায়। আবার অনেক ক্ষেত্রেই ব্রণ বা পিম্পলের কারণেও কিন্তু এই ধরনের দাগ হয়ে যায়। এছাড়াও বয়স বাড়ার সাথে সাথে ত্বকের মধ্যে বলিরেখা এবং ব্ল্যাকহেডস এর সমস্যা দেখা দেয়। অনেকেই হয়তো এই সমস্ত সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য নানান রকমের বাজার চলতি রাসায়নিক জিনিস ব্যবহার করে থাকেন যা ত্বকের জন্য খুব একটা ভালো নয়।। এতে সাময়িকভাবে আরাম পাওয়া গেলেও চিরস্থায়ী সমাধান কিন্তু হয়ে না। তবে কিছু রাসায়নিক জিনিস এমনও রয়েছে যা হয়তো সঠিকভাবে কাজ করে ।

নিম্নলিখিত ব্যাপারগুলির সাহায্যে কিন্তু বিশেষ কোনো ঝামেলা ছাড়াই এই ত্বকের সমস্যা আপনারা দূর করতে পারে।

আধুনিক ত্বকে কালো দাগ/ সান ট্যান দূর করার চিকিৎসার খরচ ভারতে তিন হাজার থেকে সাত হাজার টাকার মতো পড়ে। তাই যদি চিকিৎসার মাধ্যমে এটা দূর করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই জেনে নিতে হবে সেটা আপনি কোথায় করছেন এবং কেমন ভাবে। জায়গা এবং প্রডাক্ট আর চিকিৎসকের উপর খরচ নির্ভর করবে।

বহু পার্লারে গিয়েও আপনি ফেসপ্যাক ব্যবহার করে এই ট্যানিং এর সমস্যা দূর করতে পারেন।। আপনার শেষে যদি এই সমস্যা থাকে সেক্ষেত্রে মোটামুটি এক হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকার মতো খরচ পড়বে।

আপনারা চাইলে কোন নামী ব্র্যান্ডের লোশান ব্যবহার করতে পারেন যা আপনাদেরকে এই কালো দাগের হাত থেকে রেহাই দিতে সাহায্য করবে।

Read More: Beauty Tips : কিভাবে নিজের ত্বকের যত্ন নেন আলিয়া ভাট, অভিনেত্রীর মতো রূপ পেতে চাইলে আজ থেকেই ট্রাই করুন এই বিশেষ কয়েকটি টিপস

এবার অনেকেই হয়তো জানতে আগ্রহী রয়েছে নেই কালো দাগ দূর হতে ঠিক কতটা সময় লাগতে পারে। আপনার ফেসে এবার স্কিনে সেই কালো দাগ কতটা জায়গা জুড়ে এবং ঠিক কেমন ভাবে রয়েছে সেটার উপর নির্ভর করবে এর সময়।

১) কেমিক্যাল পিলের ব্যবহার:

চর্ম বিশেষজ্ঞরা সাধারণত মুখের কালো দাগের জন্য কেমিক্যাল পিল করেন এবং পুরো ফল পেতে ৪-৬টি সেশনের পরামর্শ দেন। তবে অবশ্যই কোনো নামী জায়গা থেকে আপনাকে এই সেশন করতে হবে, যাতে অভিজ্ঞ চিকিৎসক পান আপনারা।

২) লেজার টোনিং –

লেজার টোনিং প্রয়োগ করার পরেই ট্যান বেশ কিছুটা কমে যায়। দেহের কোন এটি প্রয়োগ হচ্ছে, তার উপর অবশ্য বিষয়টি নির্ভর করে। ৪ – ৬টি সেশনের প্রয়োজন হতে পারে।

৩) মাইক্রোডার্মাব্রেশন –

মাইক্রোডার্মাব্রেশন চিকিৎসার ভাল ফল পেতে ৪ – ৬টি সেশন লাগতে পারে।

ব্যাস এই কয়েকটি বিষয় ছাড়া আপনারা কিন্তু প্রাকৃতিকভাবেও নিজেদের ত্বকের খেয়াল রাখতে পারেন কিছু সাধারন জিনিস করে।

  • গ্রীষ্মকালে বা বছরের অন্যান্য সময় রৌদ্রজ্জ্বল অবস্থায় যদি বাইরে বেরোন সে ক্ষেত্রে অবশ্যই সান্সক্রিম ব্যবহার করতে ভুলবেন না।
  • নিয়মিত ফেসওয়াশ এবং স্কিনটোনার ব্যবহার করুন এবং ক্লিনজিং এর মাধ্যমে মুখ পরিষ্কার রাখুন।
  • অন্ততপক্ষে দিনে একবার স্ক্রাবিং করার চেষ্টা করুন।

Read More: Weight Loss Tips : জল খেলেই কমে যাবে ওজন, শুধু জানতে হবে আসল কায়দা