কোন রকমের তেলেভাজা লুচি অথবা পরোটা নয়, জলখাবারে খেতে পারেন এই বিশেষ পাঁচটি জিনিস

পুজোর মরশুমে শরীর সুস্থ রাখতে লুচি-পরোটার বদলে ট্রাই করুন এই বিশেষ খাবারগুলি, ফিটনেস এবং সৌন্দর্য আসবে নিমেষেই

0
97
কোন রকমের তেলেভাজা লুচি অথবা পরোটা নয়, জলখাবারে খেতে পারেন এই বিশেষ পাঁচটি জিনিস
কোন রকমের তেলেভাজা লুচি অথবা পরোটা নয়, জলখাবারে খেতে পারেন এই বিশেষ পাঁচটি জিনিস

সাধারণত যেকোনো বাঙালি বাড়িতেই কিন্তু সকালের জলখাবার হিসেবে লুচি এবং পরোটা খাওয়া হয়ে থাকে। তবে প্রতিদিন যদি আপনি এই তেলেভাজা জিনিস জলখাবারে গ্রহণ করেন তাহলে কিন্তু নানান রকমের শারীরিক অসুস্থতা লক্ষ্য করা যেতে পারে যা খুবই ক্ষতিকর। তাই বিকল্প হিসেবে আপনারা কিন্তু আমাদের আজকের প্রতিবেদনের শেয়ার করা খাবারগুলি ট্রাই করতে পারেন যা শুধুমাত্র ভালো করে পেট ভরাতে নয় আপনাকে সুস্থ থাকতেও ব্যাপকভাবে সাহায্য করবে। পুজোর মরসুমে সকলেই কিন্তু একটু ফিটনেস ধরে রাখতে চান তাই আজকের এই প্রতিবেদনটি কিন্তু শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

সকালের জলখাবারে যে খাবারগুলি রাখতে পারেন তার মধ্যে রয়েছে—

বাদাম:

সকালের জলখাবার হিসেবে খাবার জন্য বাদাম কিন্তু একটি দারুন পুষ্টিকর এবং গুণাগুণ সম্পন্ন জিনিস।আখরোট, কাজু, চিনা বাদামে রয়েছে ভরপুর পরিমাণে প্রোটিন। এছাড়া বাদাম মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে। ওজনও বাড়তে দেয় না। অর্থাৎ সবদিক থেকেই এই বাদাম আপনাদের শরীরকে নানান রকম ভাবে সাহায্য করে।

প্রোটিন স্মুদি:

সারাটা দিন ধরেই যদি আপনি নিজের শরীর চাঙ্গা রাখতে চান এবং ফিটনেস ধরে রাখতে চান তাহলে নিশ্চিন্তে প্রোটিন স্মুদি পান করতে পারেন।প্রোটিন পাউডার, কলা, বেরি, চিয়া বীজ এবং পিনাট বাটার দিয়ে মিক্সিতে প্রোটিন স্মুদি বানিয়ে নিন, এটি খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি গুনেও দারুন কার্যকরী।।

সবুজ শাকসবজি:

আমাদের শরীরের জন্য সবুজ শাকসবজি কিন্তু দারুন উপকারী একটি জিনিস তা কম বেশি আপনারা সকলেই জানেন। এর মধ্য থেকে নানান রকমের ভিটামিন এবং মিনারেল পাওয়া যায় যা আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।শাকসবজি দিয়ে নানা ধরনের খাবার তৈরি করা যায়। পাস্তা, চাউমিন তো আছেই। সেই সঙ্গে স্যালাড, স্যুপও বানিয়ে নিতে পারেন। রেসিপি জানার জন্য ইউটিউবের সাহায্য নিন।

ডিম:

ডিম হল প্রোটিনের সমৃদ্ধ উৎস। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখাও অনেক সহজ হয়ে যায়। প্রোটিন ছাড়াও ডিমে রয়েছে ভিটামিন বি এবং কোলিন। সকালের জলখাবারে যদি আপনারা একটি করে ডিম সেদ্ধ খেতে পারেন তাহলে কিন্তু শারীরিক ফিটনেস আসবে খুব সহজেই এবং নানান রকমের প্রোটিনের অভাবজনিত সমস্যাও ধীরে ধীরে দূর হয়ে যাবে।

গ্রিক ইয়োগার্ট:

খাদ্য হিসেবে গ্রিক ইয়োগার্ট সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যকর। এর সঙ্গে মধু ও বেরি মিশিয়ে নিলে তা আরও বেশি স্বাস্থ্যকর হয়ে উঠবে। শারীরিক সুস্থতা বজায় রাখতে চাইলে আপনারা কিন্তু নিশ্চিন্তে এটি সকালের জলখাবারে ট্রাই করতেই পারেন।

Read More: পুজো স্পেশালে নির্দ্বিধায় বানিয়ে ফেলুন মুর্শিদাবাদী চিকেন স্যাসলিকের রেসিপি, রেসিপি সহ রইল বিস্তারিত!

পোহা:

চিড়ের পোলাওয়ের পোশাকি নাম মূলত পোহা। চিড়ের সঙ্গে অন্যান্য সব্জি যেমন- বিনস্, আলু, গাজর ইত্যাদি মিশিয়েই মূলত এই খাবারটি তৈরি করা হয়। সকালের স্বাস্থ্যকর জলখাবার হিসাবে খেতেই পারেন পোহা।

পুডলা:

গুজরাতের বিখ্যাত খাবার এটি। সু়জি, আটা, টক দই, ক্যাপসিকাম, পেঁয়াজ, বাঁধাকপি, গাজর ইত্যাদি উপকারী উপাদান ও স্বাস্থ্যকর সব্জি দিয়ে তৈরি পু়ডলা স্বাদ ও স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখতে মাঝে মাঝে বানাতেই পারেন..।