Post Office Superhit Scheme: সরকারি পোস্ট অফিসে ১২,০০০ টাকা জমা করেই পাবেন ১ কোটি টাকা লাভ, জেনে নিন বিশদে!

Investment : সরকারি পোস্ট অফিসে বিনিয়োগ করে লাভ পেতে চান? তাহলে এই দুর্দান্ত স্কিম সম্পর্কে আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে.. জেনে নিন কিভাবে এবং কবে বিনিয়োগ করলে পাবেন দুর্দান্ত রিটার্ন!

0
260
Post Office Superhit Scheme: সরকারি পোস্ট অফিসে ১২,০০০ টাকা জমা করেই পাবেন ১ কোটি টাকা লাভ, জেনে নিন বিশদে!
Post Office Superhit Scheme: সরকারি পোস্ট অফিসে ১২,০০০ টাকা জমা করেই পাবেন ১ কোটি টাকা লাভ, জেনে নিন বিশদে!

বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে এমন বহু মানুষ রয়েছেন যারা কিন্তু অন্যান্য জায়গার থেকে বেশি পোস্ট অফিস কেই সবথেকে নিরাপদ বিনিয়োগ মাধ্যম বলে মনে করে থাকেন। সত্যিই যে পোস্ট অফিস একটি দুর্দান্ত জায়গা তা হয়তো আপনাদের আলাদা করে বলার দরকার নেই। যদি আপনারা এখানে ভালো রিটার্ন পেতে চান এবং অল্প সময়ের মধ্যে দারুন আর্থিক লাভ করতে চান সে ক্ষেত্রে কিন্তু অবশ্যই আজকের এই প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে। আজ আমরা আগ্রহী পাঠক বন্ধুদের উদ্দেশ্যে জানাবো পোস্ট অফিসের পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (PPF) স্কিম সম্পর্কে। এই প্রকল্পটির মাধ্যমে গ্রাহকেরা সম্পূর্ণ নিরাপদ ভাবে বিনিয়োগ করতে পারবেন এবং সবথেকে ভালো ব্যাপার হচ্ছে যে এই প্রকল্প বাজারের ওঠানামা দ্বারা কোনোভাবেই প্রভাবিত হবে না।

এই স্কিমের ক্ষেত্রে সুদের হার সরকার দ্বারা নির্ধারিত হয়, যা ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে পর্যালোচনা করা হয়। এখানে বার্ষিক সুদ দেওয়া হচ্ছে ৭.১ শতাংশ। জানিয়ে রাখি,আপনি যদি প্রতি মাসে একটি পিপিএফ অ্যাকাউন্টে ১২,৫০০ টাকা জমা করেন এবং ১৫ বছর ধরে এটি বজায় রাখেন তবে আপনি ম্যাচুরিটির পরে মোট ৪০.৬৮ লক্ষ টাকা পাবেন। এতে আপনার মোট বিনিয়োগ হবে ২২.৫০ লক্ষ টাকা এবং সুদ থেকে আপনার আয় হবে ১৮.১৮ লক্ষ টাকা।

কোথায় এবং কিভাবে এই স্কিমে বিনিয়োগ করবেন?

এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে চাইলে পোস্ট অফিস বা ব্যাংক শাখায় পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (PPF) অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।মাত্র ৫০০ টাকা দিয়ে এই অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। এতে বছরে ১.৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা দেওয়া যাবে। এই অ্যাকাউন্টের মেয়াদ ১৫ বছর।

আরও পড়ুন- SIP : এসআইপির কিস্তি বাদ পড়ে গেছে? এবার কি করনীয়!

এই স্কিম থেকে কিভাবে আপনারা লাভবান হবেন?

আপনি যদি এই স্কিম থেকে দুর্দান্ত আর্থিকভাবে লাভবান হতে চান তাহলে কিন্তু কিছু বিষয় জানতে হবে আপনাকে ১৫ বছর পরে ৫ ও ৫ বছরের জন্য এটি দু’বার বাড়াতে হবে। অর্থাৎ এখন আপনার বিনিয়োগের মেয়াদ ২৫ বছর হয়ে গেছে। সুতরাং, 25 বছর পরে আপনার মোট তহবিল হবে 1.03 কোটি টাকা। এই সময়ের মধ্যে আপনার মোট বিনিয়োগ হবে 37.50 লক্ষ টাকা, এবং আপনি সুদ আয় হিসাবে 65.58 লক্ষ টাকা উপার্জন করবেন। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যে এই সুবিধা পেতে গেলে মেয়াদ পূর্তির এক বছর আগে আবেদন পত্র দিতে হবে। মেয়াদ পূর্তির পরে অ্যাকাউন্টটি বাড়ানো যাবে না।

এই স্কিমের কিছু সুবিধা কি কি?

  • পিপিএফ স্কিমের সবচেয়ে বড় সুবিধা হ’ল এটি আয়কর আইনের ধারা ৮০ সি এর অধীনে কর সুবিধা প্রদান করে।
  • এর মধ্যে এই প্রকল্পে ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ছাড় নেওয়া যেতে পারে। পিপিএফ-এ অর্জিত সুদ এবং পরিপক্কতার পরিমাণও করমুক্ত।
  • গ্রাহকরা এতে বিনিয়োগের উপর সম্পূর্ণ সুরক্ষা পান। এতে অর্জিত সুদের ওপর অধিকতর গ্যারান্টি থাকে। তাই কোন রকম চিন্তাভাবনা ছাড়াই নিশ্চিন্তে বিনিয়োগের জন্য এগোনো যায়।

আরও পড়ুন- Investment : ন্যূনতম মূলধন দিয়ে বিনিয়োগ করতে চান? জেনে রাখুন এই কয়েকটি বিষয়