Electric Scooter Battery : কতদিন পর্যন্ত থাকে একটা ই-স্কুটারের ব্যাটারি? কত টাকা পর্যন্ত এতে খরচ হতে পারে আপনাদের? কেনার আগে জেনে নিন বিশদে!

Electric Scooter Battery : ই-স্কুটার কিনতে আগ্রহী? ব্যাটারি থেকে শুরু করে খরচ জেনে নিন সবকিছুই এই প্রতিবেদনে!

0
164
Electric Scooter Battery : কতদিন পর্যন্ত থাকে একটা ই-স্কুটারের ব্যাটারি? কত টাকা পর্যন্ত এতে খরচ হতে পারে আপনাদের? কেনার আগে জেনে নিন বিশদে!
Electric Scooter Battery : কতদিন পর্যন্ত থাকে একটা ই-স্কুটারের ব্যাটারি? কত টাকা পর্যন্ত এতে খরচ হতে পারে আপনাদের? কেনার আগে জেনে নিন বিশদে!

আপনাদের মধ্যে অনেকেই হয়তো জ্বালানির খরচ কমানোর জন্য বর্তমানে ইলেকট্রিক স্কুটার কেনার কথা ভাবছেন। তবে এই ইলেকট্রিক স্কুটার কেনার আগে আপনাদের কিন্তু কিছু বিষয় ভালোভাবে জেনে নেওয়া প্রয়োজন রয়েছে। কারণ এই বিষয়গুলো না জানলে প্রথমবার ইলেকট্রিক স্কুটারের ক্রেতা হিসেবে আপনাকে পরবর্তীতে সমস্যার মুখোমুখি হতে পারে। প্রসঙ্গত,ইলেকট্রিক স্কুটারের মূল পার্টস, ব্যাটারি সংক্রান্ত খবরাখবর রাখেন না অনেকেই। বর্তমানে বাজারে তিন ধরনের ব্যাটারির ই-স্কুটি বিক্রি হয়। এই প্রত্যেকটি ব্যাটারির কোনটি কেমন আর কতদিন পর্যন্ত চলবে থেকে শুরু করে আরো অন্যান্য বিষয় নিয়েই এই প্রতিবেদন।

মোটামুটি ব্যাটারির হিসেব অনুযায়ী একটি ইলেকট্রিক স্কুটার কিনতে গেলে আপনাকে 50,000-80,000 (লিথিয়াম আয়ন) টাকা খরচ করতে হতে পারে।বর্তমানে বেশিরভাগ ইলেকট্রিক স্কুটারের ব্যাটারি 3-4 বছর টিকে যায়। অধিকাংশ দু চাকায় ব্যবহার লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি প্যাক যা চার্জিং সাইকেল হয় 5000 থেকে 6000। যখন স্কুটারের ব্যবহারকারী,0-100 শতাংশ পর্যন্ত ইলেকট্রিক স্কুটারের ব্যাটারি ব্যবহার করে, তখন একটি চার্জিং সাইকেল পূরণ হয়। তবে যদি আপনি ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ব্যবহার করার পরে রাখেন সেক্ষেত্রে বাকিটাকে চার্জিং সাইকেল পূরণ ধরা হবে। আশা করি এই বিষয়টি পরিষ্কার করতে পেরেছি।

• কিভাবে বুঝবেন ইলেকট্রিক স্কুটারের নতুন ব্যাটারি দরকার?

নির্দিষ্ট সময় ব্যবহার করার পর যখন আপনারা দেখবেন যে ব্যাটারি আর আগের মত চার্জ নিচ্ছে না অথবা সুবিধে দিচ্ছে না তখনই কিন্তু আপনারা বুঝে যাবেন যে নতুন ব্যাটারির প্রয়োজনীয়তা এসেছে।নতুন ব্যাটারি নেওয়ার আগে অবশ্যই সার্ভিস সেন্টারে দেখিয়ে নেওয়া উচিত। কারণ তাঁদের কাছে ব্যাটারি স্বাস্থ্য যাচাই করার সঠিক যন্ত্র ও পদ্ধতি থাকে।

আরও পড়ুন- Yamaha Bikes : দেখে নিন ইয়ামাহার এই নতুন মডেল, রইল তেইশের সেরা 5 বাইক ও স্কুটার!

• ভারতে ব্যবহৃত ইলেকট্রিক স্কুটারের ব্যাটারির ধরন:

আমাদের দেশে তিন ধরনের ব্যাটারি ইলেকট্রিক স্কুটারে ব্যবহার করা হয়।লিথিয়াম আয়ন বা LFP, লিড অ্যাসিড এবং মেটাল হাইড্রাইড। এর মধ্যে লিড অ্যাসিড ব্যাটারি সবথেকে পুরনো। এটি ওজনে বেশি হয় এবং দামে কম। তবে এই ব্যাটারি খুব বেশিদিন কিন্তু আপনি চালাতে পারবেন না। সাধারণত বেশিরভাগ ইলেকট্রিক স্কুটারেই লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়। দাম একটু বেশি হলেও এই ব্যাটারী কিন্তু অনেক দিন পর্যন্ত চলে আর ওজনেও হালকা।

• ব্যাটারি পরিবর্তন করার উপায়:

যদি আপনি ইলেকট্রিক স্কুটার এর ব্যাটারি পরিবর্তন করতে চান তাহলে কি করনীয়?এই মুহূর্তে ব্যাটারি প্যাকের দাম রয়েছে 50,000-80,000 টাকা অথবা প্রতি kwh 1000 টাকা ধরেও এগোতে পারেন।ব্যাটারি বাড়িতেই বদলে নিতে পারেন। প্রথমে পুরনো ব্যাটারি বাইরে এনে, সমস্ত পার্টস পরিষ্কার করে নতুন ব্যাটারিটি ইনস্টল করে নিতে হবে। যদি আপনারা এই কাজটির ব্যাপারে আগ্রহী না থাকেন অথবা আপনাদের কাছে সময় না থাকে সেক্ষেত্রে অবশ্যই সার্ভিস সেন্টারের সঙ্গে বা নিকটবর্তী গাড়ি সারানোর দোকানে যোগাযোগ করুন।

আরও পড়ুন- Top 10 Cars in India : ভারতের সবচেয়ে সুরক্ষিত ১০টি গাড়ি কি কি? জেনে নিন বিস্তারিত!

সবশেষে আমরা ইলেকট্রিক স্কুটারের ক্রেতাদের কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখার কথা বলব—

  • এই বিষয়গুলি যদি আপনারা ফলো করে চলেন তাহলে কিন্তু আপনাদের ইলেকট্রিক স্কুটারের ব্যাটারি লাইফ অনেকটাই বৃদ্ধি পাবে এবং স্বাভাবিকভাবেই আপনাদের খরচও কমবে।
  • ব্যবহার না করলেও স্কুটার চার্জ করে রাখবেন।
  • স্কুটারের উপর খুব বেশি ওজন চাপাবেন না।
  • একটি নির্দিষ্ট গতিতে ইলেকট্রিক স্কুটার চালানোর চেষ্টা করুন। আচমকাই গতি বাড়িয়ে দিলে কিন্তু এর ব্যাটারি লাইফে প্রভাব পড়তে পারে।
  • কোম্পানি থেকে দেওয়া ম্যানুয়াল বুক আপনাকে ব্যাটারি লাইফের ক্ষেত্রে মেনে চলতে হবে।